Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

| |

‘কোনো গণ্ডির মধ্যে নিজেকে আটকে রাখতে চাই না’

আপডেটঃ 8:01 pm | January 13, 2019

বাহাদুর ডেস্ক :

কর্ণিয়া। কণ্ঠশিল্পী। সম্প্রতি ‘দরদ’ নামের একটি ছবিতে প্লেব্যাক করেছেন তিনি। এ ছাড়াও ব্যস্ত আছেন স্টেজ শো এবং বেশ কিছু একক ও দ্বৈত গানের কাজ নিয়ে। এ সময়ের ব্যস্ততা ও অন্যান্য প্রসঙ্গে কথা হয়  তার সঙ্গে-

অনেক দিন পর চলচ্চিত্রে প্লেব্যাক করলেন। কেমন হলো এবারের গানটি?

‘দরদ’ ছবির ‘ভালোবেসে যেতাম শুধু’ গানটি আমার কাছে সময়োপযোগী মনে হয়েছে। সুদীপ কুমার দীপ গল্প নির্যাস থেকেই গানের কথা লিখেছেন। সুরও সিনেমার ঘটনার সঙ্গে মিল রেখে তৈরি করা। এটা ঠিক যে, গল্পের ওপর ভিত্তি করে সিনেমার গান তৈরি হয়। গীতিকার ও সঙ্গীত পরিচালক চাইলে সিনেমার গানেও নিরীক্ষাধর্মী কাজ তুলে ধরা সম্ভব। সুরকার শামীম মাহমুদ সে কাজটিই করেছেন। বেলাল খানের সঙ্গে গাওয়া এ গানটি অনেকের কাছে ভিন্ন ধাঁচের মনে হবে বলেই আমার ধারণা।

একক গানের চেয়ে আজকাল দ্বৈত গান বেশি গাইছেন। এর কারণ কী?

নিজের পরিকল্পনায় একের পর এক দ্বৈত গান গেয়েছি, তা কিন্তু নয়। এটা হয়েছে সুরকার ও গানের প্রকাশকদের কারণে। আসিফ আকবরের সঙ্গে গাওয়া ‘কী করে তোকে বোঝাই’ গানটি জনপ্রিয় হওয়ার পর থেকেই অনেক সুরকার ও গানের প্রকাশক চেয়েছেন আমরা যেন আরও বেশ কিছু দ্বৈত গান করি। যে জন্য পরে আসিফের সঙ্গে ‘একবার ছুঁয়ে যা হৃদয়’, ‘এলোমেলো জীবন’, ‘মেঘ বলেছে’ গানগুলো গাওয়া। এর মধ্যে দ্বৈত গান বেশি গাইলেও একক গানের আয়োজন কিন্তু থেমে নেই।

একক গানগুলো কবে নাগাদ প্রকাশ পাবে?

বছরজুড়েই নানা ধরনের গান করতে চাই। ক’দিন আগে স্নেহাশীষ ঘোষের কথা ও রেজওয়ান শেখের সুরে ‘বাঁকা চোখে’ শিরোনামের একটি মেলোডি গান রেকর্ড করেছি। আরেকটি ভিন্ন ধাঁচের গান করেছি অম্লান চক্রবর্তীর সুরে। ‘ঢাকাতে জ্যাম’ শিরোনামের এই গানটির কথা লিখেছেন সুদীপ কুমার দীপ। এর পাশাপাশি নাভেদ পারভেজের সুরে ‘তুই তোকারি’ শিরোনামের একটি গানে জুয়েল মোর্শেদের সঙ্গে কণ্ঠ দিয়েছি। এগুলো একে একে বিভিন্ন মাসে প্রকাশ পাবে।

সুরকারের বাইরে নিজের পরিকল্পনায় কোনো গান করার ইচ্ছা আছে?

শিল্পী হিসেবে নির্দিষ্ট ঘরানা বা কোনো গণ্ডির মধ্যে নিজেকে আটকে রাখতে চাই না। এ জন্য নিজে ভালোলাগা থেকে কিছু নিরীক্ষাধর্মী গান তৈরি করতে চাই। এরই মধ্যে কাজও শুরু করেছি।

নিজেকে ভার্সেটাইল শিল্পী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতেই এমন ভাবনা?

ঠিক তাই। কারণ ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই আমি চেয়েছি, নানা ধরনের গানের মধ্য দিয়ে পরিচিতি গড়ে তোলার। এ কারণেই কখনও টেকনো, কখনও হার্ডরক আবার কখনও ফোক ফিউশন, নয়তো মেলোডি গানে কণ্ঠ দিয়েছি। গায়কির মধ্য দিয়ে নিজেকে বারবার ভাঙার জন্যই এই প্রচেষ্টা। তাই প্রতিটি কাজের ক্ষেত্রে যথেষ্ট সময় নিই।

Print Friendly, PDF & Email