Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

| |

গৌরীপুরে সৌদি নাগরিকের লাশ ময়না তদন্ত ছাড়াই দেশে নিতে ছোট ভাইয়ের আবেদন

আপডেটঃ 10:12 pm | February 11, 2019

মিলন খান  :
ময়মনসিংহের গৌরীপুরে সৌদি নাগরিক আলদুসারী নাচ্ছের ফালেহ জি (৪৮) (আবু নাছের আল দুসারী) মৃত্যুর ঘটনাস্থল সোমবার (১১ ফেব্রুয়ারি/১৯) পরিদর্শন করেন তার ছোট ভাই ছাদ সালেহ। ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ দেশে নেয়ার জন্য তিনি সৌদি দূতাবাসের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে আবেদন জমা দেন।
এছাড়াও তিনি একই দিনে ময়মনসিংহের জেলা প্রশাসক ডক্টর সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাস, ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার শাহ মো. আবিদ হোসেন বিপিএম’র সঙ্গে পৃথক বৈঠক করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন। অপরদিকে নাছেরের বন্ধু আবু সাইদ সানীর সঙ্গে জেলখানায় সাক্ষাত করেন সৌদি নাগরিকের ভাই ছাদ সালেহ।
গৌরীপুরের ডৌহাখলা থেকে উদ্ধারকৃত সৌদি নাগরিক আলদুসারী নাচ্ছের ফালেহ জি (৪৮) (আবু নাছের আল দুসারী) এর লাশ রোববার (১০ ফেব্রুয়ারি/১৯) সকালে সৌদি দুতাবাসের কর্মকর্তার নিকট হস্তান্তর করেন গৌরীপুর থানার পুলিশ।
রোববার ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (মচিমহা) হিমঘর থেকে এ লাশ গ্রহণ করেন সৌদি দূতাবাসের সেক্রেটারি টু চার্জ দ্য এফেয়ার্স ইয়াসিন মো. আব্দুস শহীদ চৌধুরী। লাশ হস্তান্তর করেন গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন।
পুলিশ সূত্র জানায়, সৌদি দূতাবাসের চার্জ দ্য এফেয়ার্স আমের ওমর সালেম ওমরের পত্রাদেশ মূলে ও ময়মনসিংহের বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ডক্টর সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাসের অনুমতিক্রমে এ লাশ হস্তান্তর অনুষ্ঠিত হয়। গৌরীপুর থানার সাবইন্সপেক্টর বিপ্লব মহন্তের নেতৃত্বে পুলিশ প্রহরায় লাশ নিয়ে যাওয়া হয় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হিমঘরে। এ রির্পোট পাঠানো পর্যন্ত রাত রোববার রাত ৮টায় লাশ ঢামেক হিমঘরে রয়েছে বলে নিশ্চিত করেন সাবইন্সপেক্টর বিপ্লব মহন্ত
অপরদিকে শনিবার রাতে সৌদি নাগরিকের অপমৃত্যু সংক্রান্ত ঘটনার সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে ময়মনসিংহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এডমিন) হুমায়ুন কবীর, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম) এস.এ নেওয়াজী, গৌরীপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাখের হোসেন সিদ্দিকী ও গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন ও উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
এ দিকে রোববারও সৌদি নাগরিকের মৃত্যুর সংবাদে সানী’র বাড়িকে ঘিরে ছিলো উৎসুক জনতার ভিড়। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন ময়মনসিংহ রেঞ্জের ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝি, ময়মনসিংহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এস.এ নেওয়াজী ও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তাগন।
অপরদিকে আবু নাছের আল দুসারী মৃত্যুর ঘটনায় গৌরীপুর থানার সাবইন্সপেক্টর (এসআই) বিপ্লব মহন্ত বাদী হয়ে গৌরীপুর থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেন। লাইসেন্সবিহীনভাবে চোলাই মদ সেবন করার অপরাধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে আবু সাইদ সানীর বিরুদ্ধে আরও একটি মামলা হয়েছে। এ মামলা দায়ের করেন গৌরীপুর থানার সাবইন্সপেক্টর (এসআই) মো. শরীফ উদ্দীন।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ডৌহাখলা গ্রামের করম আলীর পুত্র আবু সাঈদ সানীর সঙ্গে প্রায় ২০বছর পূর্বে ঢাকায় পরিচয় ঘটে আবু নাছের আল দুসারীর। এ পরিচয়ের সূত্র ধরেই অবকাশ যাপনের জন্য প্রায়শ: তিনি গৌরীপুরে আসতেন। সানির লালন আখড়ার নামে চলতো মদ, গাঁজার সঙ্গে গান-বাজনাও।
সৌদি নাগরিক সর্বশেষ এদেশে আসেন ২০১৮সালের ৯ ডিসেম্বর। সেদিন থেকেই সানীর বাড়িতে তিনি থাকতেন। বৃহস্পতিবার রাত ৯টায় সানীর বাড়িতে আবু নাছেরর মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আবদুল্লাহ আল মামুনের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করেন। আবু নাছের একজন ভিসা ব্যবসায়ী।

//টি.কে/নাইন//

Print Friendly, PDF & Email