Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

| |

জিবিসি’র জমি নিয়ে মিথ্যা অপবাদে মাবনবন্ধনের প্রতিবাদে গারো ব্যাপ্টিষ্ট কনভেশনের সংবাদ সম্মেলন

আপডেটঃ 7:55 pm | March 02, 2019

এম এ আজিজ, ময়মনসিংহ ব্যুরো ॥

গারো ব্যাপ্টিষ্ট কনভেশনকে (জিবিসি) নিয়ে গত ২৮ ফেব্র“য়ারী মিথ্যা অপবাদে মাবনবন্ধনের প্রতিবাদে গারো ব্যাপ্টিষ্ট কনভেশন (জিবিসি) শনিবার ময়মনসিংহ প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছে। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জিবিসি’র সভাপতি পাষ্টার (পুরোহিত) পঙ্কজ মারাক। এ সময় জেনারেল সেক্রেটারী পাষ্টার অভয় চিসিম, ফাইনাল বোর্ড ডিরেক্টর পাষ্টার প্রদত্ত ঘাগ্রা, সদস্য মিসেস মিতালী কুবী।
এ সময় বক্তারা বলেন, গারো ব্যাপ্টিষ্ট কনভেশন জিবিসি একটি অলাভজনক ও অরাজনৈতিক খ্রীষ্ট ধর্মীয় সংগঠন। উল্লেখিত প্রতিষ্ঠানটি সরকারের রেজিষ্টার অব জয়েন্ট স্টক কোম্পানী এন্ড ফার্ম দ্বারা নিবন্ধিত। ব্যাপ্টিষ্ট মতবাদে বিশ্বাসী বিভিন্ন চার্চের সদস্যগণ এর সদস্য। ১১টি বিভাগের ১৫৭টি মন্ডলী বা চার্চের প্রায় ২০ হাজার কমিউনিটি রয়েছে। ৬৭জন সদস্য নিয়ে নির্বাহী কমিটি যা জরুরী প্রয়োজনে যেকোন সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষমতা রাখে। এছাড়া জিবিনির সাত সদস্যে কেন্দ্রীয় কমিটি রয়েছে। ঐ কমিটি নির্বাহী কমিটির সকল সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন, সুপারভিশন ও মনিটরিং করে থাকে। এছাড়া জিবিসির রুলস অনুসারে জেনারেল সেক্রেটারী সিইও হিসাবে সকল স্থাবর অস্থাবর সম্পত্তি ও মূল্যবান দলিলপত্রের হেফাতকারী হিসাবে সক চুক্তি সম্পাদনের অধিকারী। সেই আলোকে ময়মনসিংহ শহরের কাচিঝুলিতে অবস্থিত কাশর মৌজার অন্তর্ভুক্ত জিবিসি কলেজ হোষ্টেলের পার্শ্বের খালি হয়ে পড়া (পরিতক্ত) সিডনি হাউজ ৬ বছরের জন্য ভাড়ার জন্য চুক্তিপত্র করা হয়। এ লক্ষ্যে জিবিসির রেভাঃ লিটন ম্রং স্থানীয় রূপসী বাংলা বহুমুখী সমবায় সমিতি লিঃ এর সাথে গত ২৬ জানুয়ারী ২০১৯ তারিখে চুক্তি হয়। পরে সিডনি হাউজটি রূপসী বাংলার কাছে নিয়ম অনুসারে হস্তান্তর করা হয়। পরবর্তীতে গত ২৬ ফেব্র“য়ারী জিবিসির বর্তমান কমিটি ও রূপসী বাংলা যৌথ সুপারভিশনে বাউন্ডারী দেওয়াল নির্মাণ কাজ শুরু করে। যা মৃণাল মুর্ম ও মিঃ বার্লিন নকরেকসহ অন্যান্যরা বাধা দিলে বির্তক সৃষ্টি হয়। উল্লেখিত চক্রটি সিডনি হাউজ ও তৎ সম্পত্তি দখলের প্রচেষ্ঠায় ব্যর্থ হয়ে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে জনগণের মাঝে বিভ্রান্তি সৃষ্টিসহ গত মানববন্ধন করে। সংবাদ সম্মেলনে তারা আরো বলেন, কোন ধরণের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ঘটেনি। এছাড়া কাচিঝুলি প্রমিসেসে এ কোন প্রকার জমি বিক্রয়ের ঘটনা ঘটেনি। একই সাথে ভুমি দস্যূ আখ্যায়িতের ঘটনা সম্প্রণূ মিথ্যা ও বানোয়াট।

//টি.কে/ওয়েভ-ইন//

Print Friendly, PDF & Email