Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

| |

লোকবল নেই, বিসকা রেলস্টেশন বন্ধ ১০ বছর ধরে

আপডেটঃ 11:58 am | March 23, 2019

বাহাদুর  ডেস্ক:

লোকবল সংকটে ময়মনসিংহের তারাকান্দার উপজেলার বিসকা রেলওয়ে স্টেশনের দাফতরিক কার্যক্রম প্রায় ১০ বছর ধরে বন্ধ রয়েছে। প্রতিদিন এই স্টেশন হয়ে আন্তঃনগর, মেইল, কমিউটার ও লোকাল ট্রেনসহ ৩২টি ট্রেন চলাচল করলেও এখানে বিক্রি হয় না কোনো ট্রেনের টিকিট।

স্টেশন চালু করার জন্য এলাকাবাসী মানববন্ধন ও ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করেছেন। কিন্তু স্টেশন চালুর বিষয়ে এখনো সংশ্লিষ্ট দফতর থেকে কোনো পদক্ষেপ নেয়া হয়নি।

স্থানীয় এলাকাবাসীর অভিযোগ, এক সময়ের জমজমাট এই স্টেশন থেকে এখন ন্যূনতম যাত্রী সেবা পাওয়া যায় না। ট্রেন চলাচলে নেই কোনো সংকেত ব্যবস্থা। জানা যায় না ট্রেন আসা-যাওয়ার খবর। কোথাও যেতে আগে থেকে স্টেশনে এসে অপেক্ষা করতে হয়। বিশ্রামাগার বন্ধ থাকায় বসতে হয়ে আশেপাশের দোকানে। বিনা টিকিটে ট্রেনে চড়ে কয়েকগুণ বেশি জরিমানা দিতে হয় যাত্রীদের। পাশাপাশি মালামাল বুকিং করতেও দুর্ভোগ পোহাতে হয়। তাই এখানকার যাত্রীদের কাছে বিষাদের অপর নাম হচ্ছে বিসকা স্টেশন।

গৌরীপুর রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, ময়মনসিংহ-ভৈরব রেলওয়ে সড়কের গৌরীপুর ও শম্ভুগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনের মধ্যবর্তী স্টেশনটির নাম বিসকা। লোকবল সংকটে প্রায় ১০ বছর ধরে বন্ধ রয়েছে এর কার্যক্রম। প্রতিদিন শত শত যাত্রী এই স্টেশন হয়ে ময়মনসিংহ, গৌরীপুর, কিশোরগঞ্জ, ভৈরব, শ্যামগঞ্জ, পূর্বধলা, জারিয়া, নেত্রকোনা, মোহনগঞ্জসহ বিভিন্ন জায়গায় যাতায়াত করেন। দিনে ৩২টি ট্রেন চলাচল করলে লোকাল ট্রেন ছাড়া অন্য কোনো ট্রেন এই স্টেশনে যাত্রাবিরতি করে না। দাফতরিক কার্যক্রম বন্ধ থাকায় এই স্টেশন থেকে বিক্রি হয় না কোনো ট্রেনের টিকিট। যাত্রীরা বিনা টিকিটে ট্রেন ভ্রমণ করায় প্রতিবছর সরকার বিপুল পরিমাণ রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

বিসকা গ্রামের বাসিন্দা আব্দুর রশিদ বলেন, ‘বিসকা স্টেশনে টিকিট বিক্রি হয় না। তাই যে সকল ট্রেনযাত্রীরা বিসকা স্টেশন থেকে জারিয়া ট্রেনে চড়ে ময়মনসিংহ যায়, তাহলে বিনা টিকিটে ট্রেনে চড়ার কারণে ট্রেনের টিটি ওই যাত্রীদের জারিয়া-ময়মনসিংহ পর্যন্ত টিকিটের টাকা জরিমানা করে। অনুরুপ টাকা জরিমানা করা হয় মোহনগঞ্জ, ভৈরব সহ অন্যান্য লোকাল ট্রেনেও।’

বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, পাকা ভবনের বিসকা স্টেশনের বুকিং অফিস, স্টেশন মাষ্টার অফিস, রিলে রুম, ব্যাটারি রুম, টিকিট কাউন্টারে তালা দেয়া। ভবনের বেশ কয়েকটি কক্ষের দরজা-জানালা নেই। যত্রতত্র মলত্যাগ ও ময়লা আবর্জনা ফেলে বিশ্রামাগারটি ভাগাড়ে পরিণত করেছে।

বিসকা ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম বলেন, ‘বিসকা রেলস্টেশন চালু করার জন্য এলাকাবাসী মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করার পাশাপাশি স্থানীয় সংসদ সদস্য থেকে শুরু করে ও মন্ত্রী মহোদয় পর্যন্ত যোগাযোগ করেছে। কিন্তু স্টেশন চালু হয়নি। আমরা স্টেশনটি দ্রুত চালু করার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানাচ্ছি।’

ময়মনসিংহ রেলওয়ে স্টেশনের সুপারিনটেনডেন্ট জহুরুল ইসলাম বলেন, ‘লোকবল সংকটের কারণে বিসকা স্টেশনের কার্যক্রম দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ রয়েছে। রেলওয়ের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ যদি লোকবল নিয়োগ করে তাহলে এই স্টেশন পুনরায় চালু করা হবে।’

 

Print Friendly, PDF & Email