Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

| |

ব্রেকিং নিউজঃ

আজ থেকে বাজারে আসছে হিরোর নতুন স্কুটার

আপডেটঃ 11:08 am | April 10, 2019

বাহাদুর ডেস্ক :

বাংলাদেশে শক্ত অবস্থান জোরদার করছে হিরো মোটকর্প। আসছে জনপ্রিয় গ্লোবাল ব্র্যান্ড  ‘প্যাশনএক্সপ্রো’ এবং ‘মায়েস্ত্রোএজ’ যাত্রা শুরু করছে ২০১৯ স্প্লেন্ডার আইস্মার্ট+ মডেল বিশ্বের সবচেয়ে বড় টু-হুইলার প্রস্তুত কারক প্রতিষ্ঠান হিরো মোটোকর্প লিমিটেড। বাংলাদেশের বাজারে এক অপ্রতিরোধ্য গতিতে প্রতিনয়তই ছাড়িয়ে চলেছে নিজেদেরকে।

এরই ধারাবাহিকতায় আজ প্রতিষ্ঠান টি এদেশের বাজারে নিয়ে আসছে তিনটি জনপ্রিয় বিশ্বমানের ব্র্যান্ড–প্যাশনএক্সপ্রো (Passion XPRO) ও স্প্লেন্ডারআইস্মার্ট+ (Splendor iSmart+) মোটরসাইকেল এবং মায়েস্ত্রো এজ (Maestro Edge) স্কুটার।

দেশের বাজারে এই নতুন টু-হুইলার গুলো পাওয়া যাবে আকর্ষণীয় মূল্যে।প্যাশনএক্সপ্রো-রমূল্যথাকছে১,০৬,৯৯০টাকা, স্প্লেন্ডারআইস্মার্ট+ এর মূল্য১,০১,৯৯০টাকা এবং মায়েস্ত্রো এজ এর মূল্য থাকছে১,২৯,৯৯০টাকা। ১০ এপ্রিল থেকে দেশের সকল হিরো ডিলার শিপে পাওয়া যাবে এ মডেল গুলো।

১১০সিসি মোটর সাইকেলের বাজারে হিরোর অবস্থান জোরদার করতে অবদান রাখবে প্যাশন এক্সপ্রো এবং স্প্লেন্ডার আইস্মার্ট+।অন্যদিকে১১০ সিসিমায়েস্ত্রোএজের লক্ষ্য হবে মূলত বাংলাদেশের স্কুটার বাজারে কোম্পানির অবস্থান শক্ত করা।

এই মডেল গুলো বাজারজাত করার মাধ্যমে কোম্পানির পোর্টফোলিও’র আকার আরও বৃদ্ধিপেল, যার ফলে বিভিন্ন আয়ের ক্রেতাদের সক্ষমতা অনুযায়ী মোটর সাইকেলের চাহিদা পূরণ করতে পারবে কোম্পানিটি।

উত্তর ভারতের জয়পুর শহরে হিরো মোটোকর্পের বিশ্বমানের গবেষণাসংস্থা ‘সেন্টারফরইনোভেশনঅ্যান্ডটেকনোলজি’-তে (সিআইটি) এই তিনটিমডেলেরই নকশাপ্রস্তুত ও অন্যান্য উন্নতি সাধন করা হয়।

নতুন এই মোটরসাইকেলের বাজারে আগমন উপলক্ষ্যে হিরো মোটরকর্পের গ্লোবাল বিজনেস, স্ট্র্যাটেজি অ্যান্ড পারফর্মেন্স ট্রান্সফরমেশন বিভাগের প্রধান  রজতভার্গব বলেন, ‘বিশ্ববাজারের জন্য বাংলাদেশ খুবই গুরুত্ব পূর্ণ আমাদের কাছে। আমাদের উন্নতির একটি অন্যতম প্রধান চালক বলা যায়।

দেশের বাজারে মোটর সাইকেল আর স্কুটারের চাহিদা যে হারে বেড়ে চলেছে, তার সঙ্গে তাল মেলাতে আমরা এখানে একটি বিশ্ব মানের উৎপাদন ব্যবস্থা তৈরি করেছি। এই বাজারের বিভিন্ন অংশেই আমরা প্রতিনিয়ত এগিয়ে চলেছি।এ উন্নতির গতি আরওবাড়িয়ে দেবেপ্যাশন এক্সপ্রো এবং মায়েস্ত্রোএজের মতো ব্র্যান্ড, যা বিশ্বের অন্যান্য অঞ্চলেও তুমুল জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

আমরা আত্মবিশ্বাসী যে,এই নতুন মডেল গুলো এদেশের ক্রেতাদের আকৃষ্ট করবে এবং হিরো ব্র্যান্ডের উপস্থিতিকে আরও জোরদার করবে।”

বাংলাদেশে হিরো মোটোকর্পের যাত্রা শুরু২০১৪সালেরএপ্রিলে এবং তারা কাজ করে নিটল-নিলয় গ্রুপের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে।কোম্পানিটি অত্যাধুনিক প্রযুক্তি সংবলিত একটি কারখানা স্থাপন করে যশোরে, যেটি বছরে দেড় লক্ষ মোটরসাইকেল উৎপাদন করতে সক্ষম।

দেশজুড়ে ৩৫০টিরও বেশি গ্রাহককেন্দ্রে বিক্রি হয়ে থাকে হিরো’র পণ্য।হিরো মোটোকর্পই বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো মোটরসাইকেলের জন্য পাঁচ বছরের ওয়ারেন্টি দিয়েছে। ‘আমারহিরো’ নামে একটি বিশেষ সুবিধাও দিচ্ছে কোম্পানিটি। যার মাধ্যমে গ্রাহক সহজই এমআই সুবিধা পেতে পারেন মোটরসাইকেল কেনার ক্ষেত্রে।

হিরোর যে পণ্যগুলো এখন দেশের বাজারে পাওয়া যাচ্ছে তার মধ্যে আছে, এইচএফডিলাক্স, স্প্লেন্ডারপ্লাস, স্প্লেন্ডারআইস্মার্ট+, প্যাশনএক্সপ্রো, গ্ল্যামার, ইগনাইটর, এচিভার ১৫০এবংহাঙ্ক১৫০মোটরসাইকেল; আর স্কুটারের বাজারে আছে প্লেজার এবং মায়েস্ত্রোএজ।

নতুন১১০সিসিপ্যাশনএক্সপ্রো:

নতুন প্রজন্মের জন্য নকশা করা নতুন প্যাশন এক্সপ্রো’র আছে চমৎকার স্টাইলিং,আরও বেশি গতির ১১০সিসি ইঞ্জিন এবং সেরা কিছু ফিচারের সমাহার- যাকিনা ক্রেতাকে দেবে অতুলনীয় এক অভিজ্ঞতা।

নতুন প্যাশন এক্সপ্রো’র অতুলনীয় পারফর্মেন্সের পেছনের রহস্য আসলেএর ১১০সিসিটিওডিইঞ্জিন,যেটি৭কিলো ওয়াটের সর্বোচ্চ পাওয়ার উৎপাদন করতে পারে, আর দিতেপারে৫,৫৫০আরপিএম-এ৯নিউটন-মিটারটর্ক।

মাত্র৭.৪৫ সেকেন্ডেই শুন্য থেকে৬০কিমি ঘণ্টা বেগ অর্জন করতে পারে বাইকটি।সেই সঙ্গে জ্বালানি কার্যকারিতা ও দারুণ পরিষ্কার নিঃসরণ ব্যবস্থা তো আছেই। এই মোটর সাইকেলে হিরো’র আইথ্রিএস (আইডেল-স্টপ-স্টার্ট) সিস্টেমওআছে, যা জ্বালানি বাঁচাবে জ্যামের মাঝে।

চমৎকার ডিজাইনের এ বাইকে আছে শক্তিশালী আবরণের নতুন ফুয়েলট্যাংক, ডুয়ালটোনকালার স্কিম; সেই সঙ্গে আধুনিক, হালকা ও সেরা গুণগত মানের এলইডি টেইল ল্যাম্প।

নিরাপত্তার ক্ষেত্রে এ মোটরসাইকেল টি দিচ্ছে বেশ কিছু ফিচার, যেমন- ডিজিয়াল-অ্যানালগমিটার, সঙ্গে ডিজিটালফুয়েলগেজ, ট্রিপমিটার, অলটাইমহেডল্যাম্পঅন (এএইচও), ফ্রন্টডিস্কব্রেক, টিউবলেস টায়ার এবং সাইড স্ট্যান্ড ইনডিকেটর।বাইকটি পাওয়া যাচ্ছে তিনটি আকর্ষণীয় রঙে- কালোর মাঝে লালডোরা, টেকনোব্লু মেটালিক এবংস্পোর্টস রেড।

মায়েস্ত্রোএজ:

নতুন১১০সিসিমায়েস্ত্রো এজয়ের বহুমাত্রিক ডিজাইন আর আকর্ষণীয় ফিচারের কারণে নিশ্চিত ভাবেই বিবেচিত হবে বাজারের প্রিমিয়াম স্কুটার হিসেবে।

হিরোমায়েস্ত্রো এজের রয়েছে ১১০সিসি এয়ারকুলড ফোর-স্ট্রোকসিংগেল সিলিন্ডার ও এইচসিইঞ্জিন, যা ৬ কিলো ওয়াটে রসর্বোচ্চ পাওয়ার উৎপাদন করতে পারে, আর দিতেপারে৭,৫০০আরপিএম-এ৮.৯নিউটন-মিটার সর্বোচ্চটর্ক।

স্টাইলিশ এইস্কুটারে রআছে মোবাইল চার্জিং পোর্ট আর বুট ল্যাম্প, এক্সটারনাল ফুয়েলফিলিং, ইন্টিগ্রেটেড ব্রেকিং, রিমোটসিট এবংফুয়েল লিড ওপেনিং, ডিজি-অ্যানালগ স্পিডোমিটার।সাথে থাকছে সাইড স্ট্যান্ড ও সার্ভিস ডিউ ইনডিকেটর এবং টুইন এলইডিটে ইল ল্যাম্পইত্যাদি। হিরো মায়েস্ত্রোএজ আসছে দুটো রঙে- ক্যান্ডি ব্লেজিং রেড এবং ম্যাট ব্লু।

স্প্লেন্ডার আইস্মার্ট+

নতুন স্প্লেন্ডার আই স্মার্ট+ মূলত তরুণ প্রজন্মকে আকৃষ্ট করার জন্যই বাজারজাত করা, যা একই সাথে দিচ্ছে সেরা পারফর্মেন্স আর দীর্ঘস্থায়ীত্ব।আর স্প্লেন্ডার ব্র্যান্ডের বরাবরের মতো আস্থা, নির্ভরযোগ্যতা ও জ্বালানি কার্য কারিতা তো আছেই।

শক্তিশালী কমিউটারের সাথে আছে নতুন এয়ারকুলড ফোরস্ট্রোক সিঙ্গেল সিলিন্ডার ও এইচসি ১১০ সিসিটি ও ডিইঞ্জিন যাতে আছে খুবই কার্যকরী আইথ্রি এস প্রযুক্তি।ইঞ্জিনটি ডিজাইন করা হয়েছে নির্ঝঞ্ঝাটভাবে চালানোর উপযোগী করে, এর পরিশোধনে রক্ষমতা ও থাকছে উচ্চমাত্রার ইঞ্জিনটি৬.৭ কিলো ওয়াটের সর্বোচ্চ পাওয়ার উৎপাদ নকরতে পারে৭,৫০০আরপিএম-এ, আর দিতে পারে৫,৫০০আরপিএম-এ৯নিউটন-মিটার সর্বোচ্চ টর্ক।

স্টাইলিশ এই নতুন মোটর সাইকেলের কার্যকারিতা আর আরাম নিশ্চিত করতে রয়েছে নানা ফিচার, যেমন- অলটাইম হেড ল্যাম্পঅন (এএইচও), ডিজিটাল অ্যানালগ মিটার এবং সাইড স্ট্যান্ড ইনডিকেটর।সুন্দরন কশা এবং স্প্লিট গ্র্যাবরেইল ফিচার মোটর সাইকেলটিকে করে তুলেছে আরও আবেদনময়।

স্প্লেন্ডার আইস্মার্ট+ মোটরসাইকেল পাওয়া যাচ্ছে তিনটি রঙে- টেকনোব্লুমেটালিক, ব্ল্যাক স্পোর্টস রেড এবং স্পোর্টস রেড।

হিরো মোটোকর্প লিমিটেড সম্পর্কে

বাৎসরিক বিক্রয়ের হিসেবে হিরো মোটো কর্প লিমিটেড বিশ্বের সবচেয়ে বড় মোটরসাইকেল নির্মাতা কোম্পানি, যাদের হেডকোয়ার্টার অবস্থিত নয়া দিল্লিতে।এই সেরা অবস্থান কোম্পানিটি ধরে রেখেছে ১৮ বছরে ধরে।শুরু থেকেএপর্যন্ত কোম্পানিটি বিক্রি করেছে৮৫মিলিয়ন মোটরসাইকেল এবং স্কুটার।এশিয়া, আফ্রিকা, দক্ষিণ আমেরিকা ও মধ্য আমেরিকা জুড়ে৩৭টিদেশে নিজেদের পণ্য বিক্রয় করে থাকে হিরো মোটো কর্প।কোম্পানিটিররয়েছেমোট৭টিঅত্যাধুনিককারখানা, যারমাঝেপাঁচটিভারতে, একটিকলম্বিয়াতেএবংএকটিবাংলাদেশে।বিভিন্ন খেলাধুলায় উৎসাহ প্রদানের ব্যাপারে এটি বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় কোম্পানি গুলোর একটি, যার মাঝে আছে ক্রিকেট,  ফিল্ডহকি, গলফ এবং মোটর স্পোর্টস।

হিরো’র গ্লোবাল কর্পোরেট পার্টনার হলেন ১৪বার মেজর বিজয়ী টাইগার উডস; আর হিরো’র ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হলেন আর্জেন্টাইন ফুটবল কিংবদন্তী ও বর্তমানে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের কোচ ডিয়েগো সিমিওনে। বিস্তারিত জানতে ঘুরে আসুন: www.heromotocorp.com, FB: /HeroMotoCorpBD  এই ঠিকানায়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

//টি.কে/ওয়েভ-ইন//

Print Friendly, PDF & Email