Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

| |

গৌরীপুরে ধর্ষণের আগ্রাসন : প্রথম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা ॥ অপরদিকে এক কিশোরীকে পালাক্রমে ধর্ষণ

আপডেটঃ 11:39 am | July 02, 2019

প্রধান প্রতিবেদক :
ময়মনসিংহের গৌরীপুরে সোমবার (১ জুলাই/১৯) বিয়ের প্রলোভনে ৩বছর ধরে এক কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা হয়েছ। প্রেমিকের যৌন হয়রানি ও কটুক্তির কারণে আরেক কিশোরীর আত্মাহত্যার ঘটনায় লিখে যাওয়া ‘চিরকুট’ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এছাড়াও রোববার (৩০জুন/১৯) শেখ লেবু স্মৃতি পৌর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে মামলা করেছে ভিকটিমের মা।

মামলা ও ভিকটিম সূত্র জানায়, শনিবার (২৯জুন/১৯) পৌর শহরের সতিষা গ্রামে প্রাইভেট পড়ে বাড়ি ফেরার পথে বিকাল ৩টার দিকে একই গ্রামের নুরুল হকের পুত্র মো. কাউসার (১৮) ফুসলিয়ে প্রলোভন দেখিয়ে পরিত্যক্ত বাড়ির জঙ্গলে নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এ সময় ওই শিশু চিৎকার দিলে কাউসার পালিয়ে যায়। ঘটনার পর থেকেই কাউসার পলাতক রয়েছে।
এদিকে উপজেলার ডৌহাখলা ইউনিয়নের মরিচালী গ্রামে এক কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ৩বছর যাবত ধর্ষণের অভিযোগে একই গ্রামের মোহাম্মদ আলীর পুত্র মো. জুলহাস মিয়া (২০) এর বিরুদ্ধে গৌরীপুর থানায় মামলা সোমবার মামলা হয়েছে। ভিকটিমের ভাই এ মামলা দায়ের করেন। ভিকটিম জানায়, জুলহাস তাকে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে ৩বছর যাবত সম্পর্ক স্থাপন করে।

গত ১৬জুন আমাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এগ্লানি থেকে বাঁচাতেই আমি আত্মাহত্যার পথ বেছে নিয়ে ছিলাম। তারপরেও মরতে পারিনি। তবে জুলহাসের মা ময়না আক্তার জানান, আমার ছেলে এবার এইচএসসিতে ভর্তি হয়েছে, এসব অভিযোগ মিথ্যা।
অপরদিকে মাওহা ইউনিয়নে প্রেম, পার্কে আটক-মুক্তি, সালিশ আর কটুক্তির ঘটনা ‘চিরকুট’ লিখে আত্মাহত্যার পথ বেছে নেয় নূপুর আক্তার। তার বাড়ি থেকে সোমবার (১ জুলাই/১৯) চিরকুট উদ্ধার ও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ইসলাম মিয়া।
জানা যায়, মাওহা ইউনিয়নের মুক্তিযোদ্ধা মিজাজ খান টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজে নবম শ্রেণির ছাত্রী নূপুর আক্তার ও দশম শ্রেণির ছাত্র প্রসেনজিত একসাথে পড়ার সুবাদে তাদের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। মঙ্গলবার (২৫জুন/১৯) প্রেমের সর্ম্পক ধরেই নূপুর আক্তার ও প্রসেনজিত সরকার কেন্দুয়া উপজেলার নিঝুম পার্কে বেড়াতে যায়। সেখানে বখাটেদের হাতে আটক হয় প্রেমিক যুগল। এরপর অনুষ্ঠিত সালিশ ও সুরাহাবিহীনভাবে নূপর আক্তারকে বুধবার (২৬জুন/১৯) বাড়িতে রেখে যান সালিশকারী আওয়ামী লীগ নেতা দেওয়ান খসরুজ্জামান খান বাবুল। ওই সন্ধ্যায় কটুক্তির অপবাদ সইতে না পেরে ‘চিরকুট’ লিখে নিজ ঘরে আত্মাহত্যা করে নূপুর আক্তার। আত্মাহত্যার প্ররোচনা ও যৌন হয়রানির দায়ে এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (২৭জুন/১৯) প্রেমিক প্রসেঞ্জিত সরকারের বিরুদ্ধে গৌরীপুর থানায় মামলা হয়েছে।

গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ইসলাম মিয়া বলেন, শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা ও কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। নূপুররের বাড়ি থেকে ‘চিরকুট’ উদ্ধার করা হয়েছে। তা যাছাই-বাছাই বলছে।

টি.কে ওয়েভ-ইন

Print Friendly, PDF & Email