Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

| |

গৌরীপুরে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে প্রহার করায় সমাপনি মডেল টেস্ট পরীক্ষা দিতে পারেনি

আপডেটঃ 7:49 pm | September 29, 2019

মোখলেছুর রহমান, গৌরীপুর অফিস :
ধান ক্ষেতে গরু যেয়ে ফসলের ক্ষতি করায় গরুটিকে খোয়াড়ে দেন কৃষক দুলাল মিয়া। এতে গরুর মালিক আব্দুল আজিজ বিক্ষুব্দ হয়ে তার নেতৃত্বে রোববার (২৯ সেপ্টেম্বর/১৯) দুলাল মিয়ার কন্যা ৫ম শ্রেণির ছাত্রী আজিমা আক্তারকে রাস্তায় ফেলে প্রহার করে। তাকে গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়ছে। ফলে রোববারের গণিত পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেনি আজিমা। স্কুল ছাত্রী আজিমা আক্তারের বাবা মো. দুলাল মিয়া এ ঘটনায় বিচার চেয়ে গৌরীপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

উপজেলার ডৌহাখলা ইউনিয়নের ঝাউগাই গ্রামের মো. সৈয়দ আলীর পুত্র কৃষক দুলাল মিয়া জানান, গত বৃহস্পতিবার (২৬ সেপ্টেম্বর/১৯) প্রতিবেশী মৃত মরমুজ আলীর পুত্র মো: আব্দুল আজিজের গরু যেয়ে তার রোপিত ধান ক্ষেতে ফসলের মারাত্মক ক্ষতি করে। ধানক্ষেত থেকে গরু আটক করে ইউনিয়ন পরিষদের ইজারাকৃত সরকারি খোয়াড়ে জমা দেন। এতে আব্দুল আজিজ ক্ষুব্ধ হন। প্রতিশোধ নিতে রোববার (২৯ সেপ্টেম্বর/১৯) ঝাউগাই আলিম উদ্দিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী আজিমা আক্তার প্রাইভেট পড়ে বাসায় ফেরার পথে হামলা করে। হামলা ও শারীরিক নির্যাতনে আজিমা আক্তার অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পরিবারের লোক তাকে উদ্ধার করে গৌরীপুর হাসপাতালে ভর্তি করে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আজিমা আক্তার এ প্রতিনিধিকে জানান, গণিত পরীক্ষার প্রস্তুতি নিয়ে প্রাইভেট থেকে বাড়ি ফেরার পথে ৬/৭জন কিলঘুষি, লাথি মারতে থাকে। এ সময় আমি রাস্তায় পড়ে গেলেও ওরা মারতেই থাকে। আজিজ জানায়, আমার গরু দুলালের ধান ক্ষেতের একটি গোছাও খায়নি। তার মেয়ে অযথা ক্ষেতের আইল থেকে গরু নিয়ে যায়। আমার স্ত্রী মোছা. রুমেলা বেগম গরু আনতে গেলে দুলালের স্ত্রী ও মেয়ে প্রথমে মারধোর করে। এরপরে দুলালও আমার স্ত্রীকে কিলঘুষি মেরেছে।

এ দিকে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আলী হায়দার জানান, আজিমা আক্তারের উপর হামলার কারণে রোববার তার পঞ্চম শ্রেণির মডেল টেস্টে গণিত পরীক্ষা দিতে পারেনি। হামলার ঘটনা অত্যন্ত দু:খজনক। আমরাও তদন্তপূর্বক বিচার দাবি করছি। গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ কামরুল ইসলাম মিঞা জানান, ঘটনার তদন্ত চলছে।

টি.কে ওয়েভ-ইন

Print Friendly, PDF & Email