Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

| |

ব্রেকিং নিউজঃ

সাউদিয়া’রসহযোগিতায় বাংলাদেশে উদযাপিত হলো ৮৯তম সৌদি জাতীয় দিবস

আপডেটঃ 8:25 pm | October 01, 2019

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি :
সৌদি আরবের জাতীয় পতাকাবাহী বিমান সংস্থা সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্স (সাউদিয়া)-এর সহযোগিতায় বাংলাদেশে উদযাপিত হয়েছে ৮৯তম সৌদি জাতীয় দিবস।সম্প্রতি ঢাকায় রয়্যাল সৌদি দূতাবাস কর্তৃক আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে দিবসটি পালনকরা হয়।

অনুষ্ঠানের শুরুতে বাংলাদেশে সৌদি আরব দূতাবাসের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স হারকান হুয়েদি এইচ বিন সাউইয়া এবং দূতাবাসের ঊর্ধ্বতনকর্মকর্তারা আমন্ত্রিত অতিথিদের অভ্যর্থনা জানান। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবেউপস্থিত ছিলেন প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রীইমরান আহমেদ, এমপি।এছাড়াসাউদিয়ারবাংলাদেশেরকান্ট্রি ম্যানেজারতারিক এ আলাওয়েদীঅনুষ্ঠানেঅতিথিদের স্বাগতজানান।


তারিক এ আলাওয়েদীবলেন, “এই দিনটি আমাদের কাছে একটি বিশেষদিন। বাংলাদেশে ৮৯তম সৌদি জাতীয়দিবসউদযাপনকরতে পেরেআমরাখুবইআনন্দিত। সৌদি আরবএবংবাংলাদেশ দীর্ঘ ও ঐতিহাসিকসম্পর্কেরবন্ধনে আবদ্ধ।সাউদিয়া ১৯৮০ সালেবাংলাদেশেকার্যক্রম শুরুকরে। দুই দেশেরমধ্যে যোগাযোগ ব্যবস্থায় অবদান রাখতে পেরে আমরাগর্বিত।”
অনুষ্ঠান উপলক্ষে দূতাবাসের অভ্যর্থনা জানানোর স্থানটি সুসজ্জিত করা হয়। কেক কাটার মাধ্যমে প্রধানঅতিথি এবং সৌদি দূতাবাসেরউচ্চপদস্থ কর্মকর্তরা অনুষ্ঠানটির উদ্বোধনকরেন।

সবশেষে র‌্যাফেলড্র অনুষ্ঠিত হয় এবং বিজয়ীদের পুরস্কারহিসেবে ৪টি ইকোনমিক্লাস এবং ১টি বিজনেস ক্লাসটিকিট দেওয়া হয়। বিশ্বের ৯৫টি শহরেসাউদিয়ার ফ্লাইট আছে। র‌্যাফেলড্ররবিজয়ীরা ওই সব শহরভ্রমণেটিকিটগুলোব্যবহারকরতেপারবেন।

সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্স (সাউদিয়া) সৌদি আরবের জাতীয় পতাকা বাহী এয়ারলাইন্স। ১৫০টির বেশিন্যারো এবং ওয়াইডবডি এয়ারবাস এবং বোয়িং বিমানের বহর সমৃদ্ধ সাউদিয়ার ফ্লাইট বিশ্বব্যাপী ৯৫টির বেশিশহরেযাতায়াতকরে। সাউদিয়ারবহরেরফ্লাইটেরমধ্যে অত্যাধুনিক স্টেট অব দ্যা আর্টের বিনোদন ব্যবস্থা আছে। এই বিনোদনের বিভিন্ন ফিচারের মধ্যে ওয়াইফাই সংযোগ এবং চারশ ঘণ্টার বেশিবহু ভাষায় হলিউড প্রিমিয়ার এবং সর্বশেষ টেলিভিশন শো, বক্স সেট, মিউজিকও অন্তর্ভুক্ত।

আছে শিশুদের জন্যও অনুষ্ঠান। ডিজিটালএবংঅডিওবুকের সাথে সাথে আরো অনেক ধরনের বিনোদনের ব্যবস্থা আছে সৌদিয়ারফ্লাইটে। সাউদিয়াবহরের গড় বয়সপাঁচবছরেরও কম।

এই বছরের শুরু থেকে, সাতটি বিমানের সিটের পিছনে টেলিভিশনস্ক্রিন এবং ওয়াইফাইসংযোগ নতুন ভাবে দেয়া হয়েছে। নতুন বিমানটি ইউরোপের শহর রোম, মিলান, মিউনিখ, ফ্রাঙ্কফুট, জেনেভাএবংভিয়েনায়যাতায়াতকরে।

সৌদিয়া পৃথিবীর প্রথম এবংএকমাত্র এয়ারলাইন্স যারা বিনামূল্যে স্যোসাল মেসেজিংপ্ল্যানেরসুবিধা প্রদানকরে। এই প্ল্যানেরমধ্যে সবচেয়েজনপ্রিয়এবংবহুলব্যবহৃতপাঁচটিঅ্যাপ্লিকেশন অন্তর্ভুক্ত।

টি.কে ওয়েভ-ইন

Print Friendly, PDF & Email