Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

| |

ব্রেকিং নিউজঃ

গৌরীপুরে উপজেলা ছাত্রলীগের স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার দাবিতে বিক্ষোভ-সমাবেশ

আপডেটঃ 8:10 pm | October 09, 2019

প্রধান প্রতিবেদক :
ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলা ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটির ওপর স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে বুধবার (৯ অক্টোবর/১৯) প্রবল বৃষ্টি উপেক্ষা করে গৌরীপুর পৌর শহরে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

উপজেলা ছাত্রলীগের স্থগিতকৃত কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইমতিয়াজ সুলতান জনি জানান, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। অভিযোগে বিবাহিত বলে উল্লেখ করা হলেও প্রকৃতপক্ষে তিনি বিবাহিত নন। এর সপক্ষে কোন প্রমানাদিও কারো কাছে নেই।
স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে বক্তব্য রাখেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক আলী আসকর সোহাগ, পৌর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক স্বাধীন, পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো: মোফাজ্জল হোসেন, ছাত্রলীগ নেতা সাহাদাত হোসেন হৃদয়, সোহানুর রহমান সোহান, শাহ জাহান, আবুল কালাম, ওয়াসিম মিয়া, হুমায়ুন কবীর, রাকিবুল ইসলাম, রাসেল মিয়া, সিরাজুল ইসলাম, সজিব আহাম্মেদ, লাবিব রহমান, রতন মিয়া, আব্দুল কাইয়ুম প্রমুখ।
বক্তরা অভিযোগ করেন অভিযোগ তদন্ত না করে ও আত্মপক্ষ সমর্থনের কোন সুযোগ না দিয়ে উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি স্থগিত করা হয়েছে। তাই সুষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে স্থগিতাদেশ প্রত্যহারের দাবিতে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ অব্যাহত থাকবে।

উল্লেখ্য ৫ অক্টোবর শনিবার ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্রাচার্য স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে গৌরীপুর উপজেলা ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটি স্থগিত করেন। এ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গৌরীপুর উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটির বিরুদ্ধে গঠনতন্ত্র পরিপন্থী আনিত অভিযোগের সত্যতা প্রমাণিত হওয়ায় এ কমিটি স্থগিত করা হয়েছে।
প্রসঙ্গত, গত ৯ জুলাই পূর্বের কমিটি বিলুপ্ত করে আল মুক্তাদির শাহীনকে সভাপতি ও ইমতিয়াজ সুলতান জনিকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করে গৌরীপুর উপজেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি অনুমোদন করেন ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ রকিবুল ইসলাম রকিব ও সাধারণ সম্পাদক সরকার মোঃ সব্য সাচী। এরপর ছাত্রলীগের স্থানীয় রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্ধি কয়েকজন এ কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে কেন্দ্রিয় ছাত্রলীগের নিকট অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে তিন মাসের মাথায় এ কমিটি স্থগিত করা হয়।

টি.কে ওয়েব-ইন

Print Friendly, PDF & Email