Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

| |

ব্রেকিং নিউজঃ

ময়মনসিংহে ৫ এপ্রিলে প্রধানমন্ত্রীর জনসভা হবে এ যাবৎকালের সর্ব বৃহৎ জনসভা -কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী

আপডেটঃ 6:15 pm | March 13, 2018

এম এ আজিজ, ময়মনসিংহ ব্যুরো :

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজকে শুধু বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হিসাবে নয় তিনি আজ বিশ্বের দরবারে একজন সমাদৃত এবং মানবতার নেত্রী। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশ যে উচ্চতায় এগিয়েছেন এটা আজ থেকে দশ বছর আগে কেউ ভাবেনি। আর এটাই হলো বাস্তবতা। দেশকে এগিয়ে নেওয়ার পাশাপাশি গেছেন সম্মিলিত দাবি ও প্রচেষ্টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের দাবি পূরুন করে ময়মনসিংহকে দেশের অষ্টম বিভাগ উপহার দিয়েছেন। ময়মনসিংহ বিভাগের কার্যক্রম সুন্দর ও সুষ্ঠভাবে বাস্তবায়ন ও কাজে গতিশীলতা আনতে আগামী ৫ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ময়মনসিংহ আসছেন। সেই প্রতিক্ষিত মুহুর্ত ও উন্নয়ন ভাবনা নিয়ে বিভিন্ন দপ্তরের উদ্বোধনযোগ্য ও ভিত্তিপ্রস্তরযোগ্য বিভিন্ন স্থাপনা, নির্মাণ কাজ ও প্রতিষ্ঠানের নির্মাণ কাজের সমীক্ষা ও প্রস্তুতি সভার মাধ্যমে বিভাগ বাস্তবায়নের কৃতজ্ঞতা স্বরূপ এ যাবৎ কালে দেশে প্রধান মন্ত্রীর যতগুলি জনসভা হয়েছে আগামী ৫ এপ্রিলের জনসভা সর্ববৃহৎ জনসভা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানাবো।
আগামী ৫ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ময়মনসিংহ বিভাগীয় শহরে আগমন উপলক্ষে মঙ্গলবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের হল রুমে এক প্রস্তুতিমূলক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে কৃষিমন্ত্রী উপরোক্ত কথা বলেন ।
৫ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ময়মনসিংহ বিভাগে আগমন উপলক্ষে ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার জি এম সালেহ উদ্দিনের সভাপতিত্বে ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। মতিয়া চৌধুরী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ময়মনসিংহ সফরকে উৎসব মুখর পরিবেশে সাফল্য মন্ডিত করার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানিয়ে আরো বলেন, ময়মনসিংহকে আধুনিক বিভাগ হিসাবে গড়ে তোলাসহ বিভাগের কার্যক্রম দ্রুততার সাথে সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করতে সম্মিলিত প্রচেস্টা প্রয়োজন। তিনি আরো বলেন, বিভাগীয় হেড কোয়ার্টার, সকল জেলার উন্নয়ন ভাবনা নিয়ে সকলের মতামতের প্রয়োজন রয়েছে। আমি বলতে নয় সকলের মতামত শুনতে এবং প্রয়োজনীয়তা জানতে এসেছি। যা পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করা হবে।
গভায় ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার জিএম সালেহ উদ্দিন বলেন, রাস্তা, ব্রীজ, মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন, ভুমিহীন ও অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের বাসস্থান নির্মাণ, শহর ও ইউনিয়ন ভুমি অফিস, ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ, শহরের আলমগীন মুনসুর (মিন্টু ) মেমোরিয়াল কলেজ, নাসিরাবাদ কলেজ, অম্বিকাগঞ্জ কলেজ, শাহগঞ্জ কলেজ, খুররম খান চৌধুরী কলেজ, আনোয়ারুল হক খান চৌধুরী কলেজ, সমুর্তজান কলেজ, ঈশ্বগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ, আঠারবাড়ী ডিগ্রি কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নবনির্মিত বহুতল ভবন উদ্বোধন করবেন। এছাড়া জেলা সমাজসেবা কমপ্লেক্স (৫ম) তলা ভবন নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তরসহ ধোবাউড়া ফায়ার সার্ভিস স্টেশন, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ফায়ার সার্ভিস স্টেশন, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের আওতায় জয়িতা ফাউন্ডে,নের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন। এছাড়া ময়মনসিংহ সড়ক বিভাগের আওতায় গুরুত্বপূর্ণ আঞ্চলিক মহাসড়ক যথাযথ মান ও প্রসস্থতা বৃদ্ধিসহ উন্নয়নের আওতায় ময়মনসিংহ-নেত্রকোণা সড়কের ৩৬ কিঃ মিঃ, গফরগাও-বরমী- মাওনা সড়কের ২৫ কিঃ মিঃ, ত্রিশাল-বালিপাড়া-নান্দাইল (কানুরামপুর) সড়কের মজবুত ও প্রসস্থিকরণ, জামালপুর-চেচুয়া-মুক্তাগাছা আঞ্চলিক মহাসড়ক প্রসস্থিকরণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর করা হবে।


প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষ্যে পৌনসভার আওতায় সকল বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রীর আগমন পথ সড়ক মেরামত, সংস্কার, স্পিড বেকার অপসারণ, বেআইনী স্থাপিত বিল বোর্ড অপসারণ, অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ, শহর পরিচ্ছন্নতাসহ বিভিন্ন সরকারী বেসরকারী ভবন রং করণ করতে স্ব-স্ব মালিকগণকে তাগিদ দেওয়া হয়। একই সাথে হোটেল, রেস্তোরায় অগ্নিনির্বাপন যন্ত্র যাচাইও পরীক্ষা নিরীক্ষা করতে ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষকে জোর তাগিদ দেন বিভাগীয় কমিশণার।
সভায় ময়মনসিংহে অর্থনৈতিক জোন গড়ে তোলাসহ, শহরের চারটি খাল ও ব্রহ্মপুত্র নদ খনন, ঢাকা-ময়মনসিংহ রেলপথকে ডাবল লাইনে উন্নতকরণ, নতুন করে আরো একটি কলেজ সরকারী করণ, একটি পূর্ণাঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনসহ অল্পতম সময়ে ময়মনসিংহকে সিটি কর্পোশেন হিসাবে ঘোষণা করতে বক্তারা কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরীর সহযোগীতা কামনা করেন।
সভায় ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। সভায় এছাড়া ডা.আমানউল¬াহ এমপি, শরিফ আহমেদ এমপি, আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিন, ফাতেমা জোহরা রানী এমপি, ময়মনসিংহ রেঞ্জ ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝি, ময়মনসিংহ, নেত্রকোণা, জামালপুর ও শেরপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, জেলা প্রশাসক, ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার, উপজেলা চেয়ারম্যান, মেয়র, বিভাগীয় পর্যায়ের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, পুলিশ প্রশাসনের কর্মকর্তা, দলীয় নেতৃবৃন্দ, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দসহ বিভিন্ন শ্রেনীপেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ৫ এপ্রিল ঐতিহাসিক সার্কিট হাউজ মাঠ থেকে ব্রহ্মপুত্র নদের বিপরীতে নতুন আধুনিক বিভাগীয় শহরের বিভিন্ন দপ্তরের ভবন নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপনসহ বিভাগের ১ শত ২০টি উন্নয়ন প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন ও নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করবেন। প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে ময়মনসিংহকে বর্ণিল সাজে সাজিয়ে তুলতে এবং তার সফর সফল করতে কৃষিমন্ত্রী ও ধর্মমন্ত্রী সংশি¬ষ্ট বিভিন্ন দপ্তরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email