Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

| |

জিমেইল এলো নতুন রূপে

আপডেটঃ 11:26 pm | May 19, 2018

বাহাদুর ডেস্ক:

বেশ কিছুদিন ধরেই কাজ করছিল গুগল। অবশেষে সবার জন্য উন্মোচিত হলো জিমেইলের পরিবর্তিত ইন্টারফেস ও ফিচার। এই পরিবর্তনগুলো ব্যবহারকারীদের ই-মেইল আদান-প্রদানের কাজকে আরো সহজ করে তুলবে।

অ্যাটাচমেন্ট দেখা যাবে আরো সহজে

এখন থেকে ইনবক্সের মেইলগুলোর সাবজেক্টের ঠিক নিচেই থাকবে সঙ্গে থাকা অ্যাটাচমেন্টের আইকন ও নাম। সরাসরি সেই নাম বা আইকনে ক্লিক করেই খোলা যাবে। আর এসব করা যাবে মেইলটি না পড়েই। দ্রুত অ্যাটাচমেন্ট দেখার জন্য ফিচারটি বেশ কাজের। শুধু তাই নয়, বিশেষ করে পিডিএফ বা মাইক্রোসফট অফিস ডকুমেন্ট ডাউনলোড না করে সরাসরি গুগল ডকসেই সম্পাদনা করা যাবে।

 

অপঠিত ই-মেইলের কথা মনে করিয়ে দেবে ‘স্নুজ’ 

অনেক সময় এমন সব ই-মেইল আমাদের ইনবক্সে পৌঁছায় যা সময় নিয়ে উত্তর দিলেও চলে। তবে নোটিফিকেশন তুলে দিলে অনেক সময় সেই মেইলের কথা ভুলেও যেতে পারেন। সে ক্ষেত্রে মেইলটির নোটিফিকেশন কিছু সময়ের জন্য বন্ধ করে রাখা যেতে পারে। ফিচারটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘স্নুজ’। চাইলে পরের দিন, সপ্তাহ শেষে বা নিজের নির্ধারিত দিনক্ষণে ই-মেইলটির নোটিফিকেশন যাতে আবারও হাজির হয় সেই ব্যবস্থা করা যাবে।

 

এক ঢিলে তিন পাখি

গুগলের অ্যাপয়েন্টমেন্ট আর ইভেন্ট টুকে রাখার সেবা ‘ক্যালেন্ডার’, কাজের তালিকা ও ছোট নোট নেওয়ার সেবা ‘কিপ’ এবং নতুন কাজের সূচি তৈরির সেবা ‘টাস্কস’ সরাসরি এখন জিমেইল থেকেই ব্যবহার করা যাবে। অতিরিক্ত ট্যাব না খুলেই সরাসরি জিমেইলের ইন্টারফেসের মধ্যেই সেবাগুলো ব্যবহার করা যাবে।

 

প্রত্যুত্তর দেওয়ার জন্য তাগিদ দেবে জিমেইল

অনেক সময় ই-মেইল পড়ার পরেও উত্তর দিতে ভুলে যাই। সে ক্ষেত্রে গুগল পড়া ই-মেইলগুলোর উত্তর দেওয়ার জন্য আবারও ব্যবহারকারীদের নোটিফাই করবে। এ ক্ষেত্রে গুগল কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করে সিদ্ধান্ত নেবে ঠিক কোন মেইলের উত্তর দেওয়াটা সবচেয়ে জরুরি। দেখা যাবে বেশ কয়েক দিন পর পর মেইলের সাবজেক্টের পাশে হলুদ রঙে লেখা থাকবে—সেটির উত্তর ব্যবহারকারী দেবে কি না। এর ফলে মেইলের উত্তর দিতে দেরি হলেও অন্তত ভুলে যাবে না ব্যবহারকারী।

 

স্মার্ট রিপ্লাই

অনেক মেইলের উত্তর সব সময় বড় করে দেওয়ার প্রয়োজন হয় না। দেখা যায় ধন্যবাদ বা কোনো ছোট প্রশ্নেই উত্তরের কাজ শেষ হয়ে যায়। এসব ক্ষেত্রে মেইলের লেখা পড়ে সে সাবজেক্ট অনুযায়ী গুগল সম্ভাব্য উত্তর তৈরি করে ব্যবহারকারীদের সামনে তুলে ধরবে। স্মার্ট রিপ্লাই ফিচারটি নিয়ে গুগল আগেও কাজ করেছে, ভবিষ্যতে ফিচারটি হয়তো বড় উত্তর তৈরি করতেও সমর্থ হবে। আপাতত স্মার্ট রিপ্লাই ব্যবহার করে ছোটখাটো উত্তর দ্রুত দেওয়া যাবে।

 

মোবাইল নোটিফিকেশন

বসের ই-মেইল বা ইমার্জেন্সি অ্যালার্ট সেবার মেইল দ্রুততার সঙ্গে দেখা জরুরি। সেসব ক্ষেত্রে এ রকম ঠিকানা থেকে মেইল এলে মোবাইলে এসএমএস হিসেবে পৌঁছে দেবে জিমেইল। অবশ্য সে ক্ষেত্রে মোবাইল নম্বর আর কোন ঠিকানার বা সাবজেক্টের মেইল প্রেরণ করা হবে, আগে থেকেই ঠিক করে দিতে হবে।

 

আনসাবস্ক্রাইব করার জন্য নোটিফাই

ই-মেইল স্প্যাম আজ ফিল্টারের দেয়াল না পেরোতে পারলেও অনেক সাইটই প্রতিদিন নিউজলেটার পাঠিয়ে ইনবক্স ভরে ফেলে। সেসব ক্ষেত্রে এসব বারবার আনসাবস্ক্রাইব করাও বিরক্তিকর, আবার অনেক সাইটে সাইন-আপ না করলেও চলে না। সে ক্ষেত্রে নিউজলেটার ও কমার্শিয়াল মেইল নিজ থেকেই স্ক্যান করে গুগল এআই আনসাবস্ক্রাইব করার জন্য ব্যবহারকারীকে নোটিফাই করবে।

 

আর নয় ফিশিং মেইল

ই-মেইল ফিশিং বা সন্দেহজনক মেইল আজ নতুন নয়, তার পরেও অনেকে সময় ভুল করে সেসব ফাঁদে পড়ে। সে ক্ষেত্রে ফিশিং মেইল আরো ভালোভাবে হাইলাইট করবে জিমেইল। মেইলের ওপর বড় করে লাল সতর্কীকরণ মেসেজ দেওয়া থাকবে। বারবার সতর্ক করা হবে লিংকটি খোলার ব্যাপারে।

 

গোপনীয় মেসেজ মোড

এই সুবিধার মাধ্যমে পাঠানো ই-মেইল যাতে কেউ চাইলেই ফরওয়ার্ড, প্রিন্ট বা কপি করতে না পারে তা ব্যবস্থা করা যাবে। প্রয়োজনে ই-মেইল পড়ার সঙ্গে সঙ্গেই ডিলিট হয়ে যাওয়ার অপশনও আছে। অনেক সময় গোপনীয় মেসেজ ইনবক্সে বছরের পর বছর রয়ে যায়। পরে সেটা হ্যাক হয়ে নানা জায়গায় ছড়িয়ে পড়ে। তা রুখতে প্রয়োজনে ছয় মাস, এমনকি এক বছর পর ডিলিট হয়ে যাবে এমন অপশনও দেওয়া হয়েছে এই মোডে। প্রয়োজনে গোপনীয় ই-মেইল খুলতে আলাদা পাসওয়ার্ড বা অনুমতি লাগবে, এমন ব্যবস্থাও শিগগির আসছে।

 

জিমেইলে এলো স্মার্ট কম্পোজ

ই-মেইল লেখার সময় বাঁচাতে সাহায্য করবে গুগল। প্রাপক ও বিষয় বিশ্লেষণ করে সম্ভাব্য বাক্য নিজ থেকেই তৈরি করে দেবে। যেমন—বিষয় যদি হয় একসঙ্গে ডিনার করার আমন্ত্রণ, তাহলে কখন, কোথায় দেখা করতে হবে সেই লাইনটি গুগল নিজ থেকেই লিখে দিতে পারবে। ফিচারটি ওয়েব ও মোবাইল অ্যাপ দুটিতেই পাওয়া যাবে। সবার জন্য এই সুবিধা উন্মুক্ত হবে সামনের মাসে। বেশির ভাগ সময় ই-মেইল ফরম্যাট অনুযায়ী লেখা হয়ে থাকে। তাই এভাবে বাক্য তৈরি করে দিলে ই-মেইল লেখায় সময় ব্যয় কমে যাবে অর্ধেক বা তারও বেশি।

 

পরিবর্তিত জিমেইল ব্যবহার করতে চাইলে

এ সব ফিচারই ব্যবহারকারীরা সরাসরি ব্রাউজার থেকে ব্যবহার করতে পারবে। আরো সহজ জিমেইল যাতে প্রফেশনাল ই-মেইল হিসেবে ব্যবহার করা যায় সেদিকে লক্ষ করেই গুগল ফিচারগুলো তৈরি করেছে।

নতুন ফিচারগুলো দেখতে হলে গুগল ক্রোম থেকে জিমেইল ডটকমে সাইন ইন করলেই হবে। কিছু কিছু ফিচার অবশ্য মোবাইল অ্যাপেও পাওয়া যাবে।

 

Print Friendly, PDF & Email