Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

| |

গৌরীপুরে রাস্তার দাবিতে আবারও ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়ক অবরোধ-বিক্ষোভ

আপডেটঃ 1:47 pm | June 04, 2018

গৌরীপুর প্রতিনিধি :
ময়মনসিংহের গৌরীপুরে রোববার (৩ জুন/১৮) রাস্তা বন্ধ করে কলতাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দেয়াল নির্মাণের প্রতিবাদে ও রাস্তার দাবিতে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়ক অবরোধ করে পাঁচটি গ্রামের বিক্ষুব্দ জনতা। এ সময় রাস্তা’র দুপাশে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে গৌরীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারহানা করিম ঘটনাস্থলে এসে সৃষ্ট সমস্যা সমাধানের আশ্বাসে অবরোধ তুলে নেন। একই দাবিতে গত ১৪ মে আরো একবার মহাসড়ক অবরোধ করে গ্রামবাসী।
স্থানীয় ও গ্রামবাসী সূত্রে জানা গেছে, ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কের পাশে কলতাপাড়া বাজারে ১৮৭৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় কলতাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। স্বাধীনতার পর থেকে উপজেলার, চূড়ালি, নন্দীগ্রাম, মুলাকান্দি সহ কয়েক গ্রামের বাসিন্দা স্কুলের পূর্বপাশের কাঁচা রাস্তা দিয়ে কলতাপাড়া বাজার হয়ে উপজেলা সদর সহ বিভিন্ন অঞ্চলে যাতায়াত করতো। ২০০৫ সালে স্কুলের পূর্বপাশে নতুন একাডেমিক ভবন নির্মাণ ও আশেপাশে বাড়িঘর গড়ে উঠার কারণে গ্রামবাসীর চলাচলের রাস্তাটা এক প্রকার বন্ধ হয়ে যায়। এরপর গ্রামের বাসিন্দারা স্কুল মাঠের ভেতর দিয়ে চলাচল শুরু করে। ২০১৫ সালে তৎকালীন এমপি ডাঃ ক্যাপ্টেন (অব.) মজিবুর রহমান ফকিরের ভাতিজা এসএমসির সভাপতি শাহ রফিকুল ইসলাম দিপু স্কুলের সামনের জায়গায় মার্কেট ও গেইট নির্মাণ করেন। এরপর থেকে স্কুল মাঠ হয়ে চলাচলের জন্য গ্রামবাসীকে নিষেধাজ্ঞা দেয় স্কুল কর্তৃপক্ষ। তবে গ্রামবাসী নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে স্কুলের ভেতর দিয়ে যাতায়াত চলাচল অব্যাহত রাখে। এমনকি বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষা চলাকালীন সময়েও স্কুলের ভেতর দিয়ে অবাধে চলাচল করতো গ্রামবাসী। চলতি মাসে বিদ্যালয়ে সরকারিভাবে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করে। এতে গ্রামবাসীর চলাচল পথ বন্ধ হয়ে যায়। বিক্ষুব্দ জনতা রাস্তার দাবিতে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়ক অবরোধ বিক্ষোভ শুরু করলে সড়কের দুপাশে শতশত যানবাহন আটকা পড়ে।
এ সমস্যা সমাধানের জন্য বিদ্যালয়ের পিছনের গাছ কেটে রাস্তা তৈরির উদ্যোগ নেয়া হয়। ডৌহাখলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহীদুল হক সরকার জানান, যেহেতু মানুষের চলাচলে প্রতিব›দ্ধকতা সৃষ্টি হয়েছে। তাই গাছ কাটার উদ্যোগ নিয়েছিলাম। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারহানা করিম জানান, গ্রামবাসীর চলাচলের জন্য দ্রুত রাস্তার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। তাই জনস্বার্থে বিদ্যালয়ের গাছগুলো নিলামে বিক্রির উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email