Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

| |

ব্রেকিং নিউজঃ

আগমনী : অনামিকা সরকার

October 05, 2019

আগমনী অনামিকা সরকার প্রভাতে ঘুম ভাঙ্গলো ঢাকের বাড়ীর সুরে, আসছে মা মত্তে এবার, আবার বছর ঘুরে। দেবী তোমার আগমনে শিশির বিন্দু ঘাসে, নদীর কূলে ছেয়ে গেছে শুভ্র বরন কাশে। শরতের সারদপ্রাতে শিউলি ফুল ফোটে সূর্য উঠার আগে শিউলি মাটিতে ঝরে পরে।। নীলে নীলিমায় সাদা মেঘের ভেলা তারই সাথে মনের হরষে জাগে হরেক রকম খেলা। মহালয়ার শেষে যখন মগ্ন ত্রিভুন, তখন থেকে আকাশে বাতাসে বাজছে মায়ের আগমন। মা তার সন্তানদের নিয়ে আসে যখন মত্তে বাহন গুলো মায়ের সাথে আটখারা খুশিতে। বাহন গুলো তারই সাথে সঙ্গে থাকে যেনো। ওরা ছাড়া মায়ের পুজো পূর্ন হয় কি কখনো। পঞ্চমীতে মায়ের গড়ন চক্ষুদানে যষ্ঠীতে মায়ের বোধন শুভ্র প্রানে। সপ্তমী তে অন্জলী দেই ফুল বেলপাতা দিয়ে। অষ্টমীতে কুমারী পূজা, সন্ধিপুজার মহা আরতিতে, নবমীতে ভক্তিমনে মায়ের দর্শন করি দশমীতে করুন সুরের ঢাকের ধ্বনি মায়ের বিসর্জন...

ময়মনসিংহে অনসাম্বল থিয়েটারের আয়োজনে পুতুল নাট্য কর্মশালা

May 25, 2019

রেবেকা সুলতানা: বাংলার হাজার বছরের নাট্যকলা ইতিহাস অনুসন্ধানের ধারায় ‘পুতুল নাট্য’ আদি ও ঐতিহ্যের সাক্ষ্য বহন করে। এমনও বলা হয়ে থাকে যে, সকল অভিনয়কলায় আদিতে ছিল পুতুল নাট্য। খ্রীস্টপূর্ব ৪র্থ শতকে প্লবক, কুহক প্রভৃতি ভ্রাম্যমান আনন্দ বিনোদনকারী সম্প্রদায় পুতুল নাচিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতো বলে কৌটিল্যের অর্থশাস্ত্রে উল্লেখ করা হয়েছে। নাটক জীবন বোধ জাগিয়ে তুলে, নাটক অন্তর্নিহিত সত্তাকে জাগিয়ে তুলে। পুতুল নাট্য নাটকের নানান দিকের একটি বিশেষ শাখা। কালের আবর্তে পশ্চিমা সংস্কৃতির প্রভাবে আবহমান বাংলার এই চমৎকার শিল্প বিলুপ্ত হতে যাচ্ছে। আর সেই সময় ময়মনসিংহের অন্যতম সাংস্কৃতিক প্লাটফর্ম অনসাম্বল থিয়েটারের আয়োজনে চলছে পুতুল নাট্য বিষয়ক চমৎকার একটি কর্মশালা। ময়মনসিংহ কাচারীঘাটে অনসাম্বল থিয়েটারের আয়োজনে পুতুল নাট্য কর্মশালাটি চলবে ২৮ মে পর্যন্ত।...

৪৫ বছর ধরে সেহরি খেতে ডেকে তোলেন আকবর

May 17, 2019

বাহাদুর ডেস্ক: ‘প্রায় ৪২ বছর আগের কথা। পবিত্র রমজান মাসের রাত। রাস্তা-ঘাট সব জনশূন্য। সেহরির সময় রোজাদারদের ডেকে তুলতে রিকশা নিয়ে মাইকিং করতে বের হই। শহরের অলি-গলি ঘুরে নতুন বাজার আসতেই দেখি সড়কে অনেকগুলো শিয়াল শুয়ে আছে। রিকশায় বসে অনবরত বেল বাজানোর পরও শিয়ালগুলো যাচ্ছিল না। উল্টো হিংস্র দৃষ্টিতে বারবার তাকাচ্ছিল। রিকশা চালক সড়ক থেকে একটি লাঠি নিয়ে তাড়া করতেই শিয়ালগুলো উল্টো আমাদের দিকে এগিয়ে আসে। ভয় পেয়ে চালক দৌড় দিল। আমিও ভয় পেয়ে মাইকে ডাক শুরু করলাম, ‘আমাদের শিয়াল তাড়া করেছে। আমাদের বাঁচান।’ পরে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে আল্লাহর রহমতে প্রাণে বেঁচে যাই।’ দীর্ঘ ৪৫ বছর ধরে সেহরির মাইকিং করার সময় একটি ভয়ার্ত অভিজ্ঞতার কথা  বলছিলেন মাইক ব্যবসায়ী আকবর আলী (৫৯)। তার বাড়ি গৌরীপুর পৌর শহরের পূর্ব দাপুনিয়া গ্রামে। বাবা মৃত আব্দুল আজিজ। বুধবার (১৫ মে) রাত...

সমাজ, সামাজিকতা ও আমি || ইমন সরকার

May 12, 2019

দিন যায় পৃথিবী আমার কাছে চেনা থেকে আরও অচেনা হয়ে উঠে। অচেনা হয় আমার চারপাশ অহর্নিশ। সামান্য হিস্যা মেলাতে মেলাতে বহুদূর চলে যায় সম্পর্কের মূল্যবোধ। আজ আপনার সুবিধা আমি মানছিনা তো আমি খারাপ, কাল আমি পাচ্ছিনা তো আপনি খারাপ। এর মাঝেই যারা নরম, শরম যাদের সভ্যতা তারা সবসময় কোনঠাসা। ছোটবেলা ঠাকুমার মুখে শুনতাম - শয়তানের পাল্লা ভাড়ি হয়। প্রকৃতিগতভাবেই দুনিয়ায় বহু ধরনের লোক। আমার এক স্যার বলতেন - দুনিয়ায় কিছু শয়তান জন্মায় আর তারা ছলে বলে অন্যদের উপর ভর করে তাদেরও শয়তান বানিয়ে দেয়। আমি প্রকৃতির এই কঠিন নিয়মের কাছে হেরে যাই। মানুষকে বড্ড মানুষের চোখে দেখার ইচ্ছা ছিল আমার। অন্তরে এক লালন করে উপরে অন্য কথা বলা মানুষগুলোর জীবনে কি মর্যাদা তা আমি জানিনা। জেনে বুঝে শয়তানির সাথে তাল দেয়ার অর্থও আমার জানা নাই। আমি বড় বেমানান এসব হিসেবী আদবকেতায়। একজন বাড়ির পাশে দাঁড়িয়ে...

ভিনগ্রহের মতো রহস্যময় দ্বীপ!

April 24, 2019

বাহাদুর ডেস্ক: এমন অদ্ভুত দেখতে গাছ খুব একটা চোখে পড়েছে কি? আরব সাগরের বুকে একটি দ্বীপে এমন আরও অনেক বিচিত্র দর্শন গাছ রয়েছে যেগুলিকে দেখলে সত্যজিৎ রায়ের লেখা কল্পবিজ্ঞানের গল্পগুলির কথা মনে পড়ে যেতে পারে। প্রফেসর শঙ্কুর নানা অভিযানের মধ্যে এমন অনেক বিচিত্র গাছের বর্ণনা রয়েছে। কিন্তু এই দ্বীপে এলে কল্পবিজ্ঞানের গল্পের বিচিত্র দর্শন গাছপালা চোখের সামনে দেখতে পাবেন। মধ্য প্রাচ্যের দেশ ইয়েমেনের মূল ভূখণ্ড থেকে প্রায় ৩৫৪ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত সকোত্রা দীপপুঞ্জ। মোট চারটি দ্বীপ মিলে এই দ্বীপপুঞ্জ যার মধ্যে সকোত্রাই আয়তনে সবচেয়ে বড়। সকোত্রার আয়তন প্রায় ৬৫৬০ বর্গকিলোমিটার। কিন্তু কেন এই দ্বীপে এত অদ্ভুত রকমের সব গাছপালার ছড়াছড়ি! উদ্ভিদ বিশেষজ্ঞদের মতে, মারাত্মক জলের অভাব আর মাত্রাতিরিক্ত তাপমাত্রার কারণে সকোত্রায় এমন অদ্ভুত গাছপালার সৃষ্টি...

‘মেথরের ছেলে বইল্যা ইশকুলে পড়তে পারি নাই’

April 23, 2019

বাহাদুর ডেস্ক: ইশকুলে (ইস্কুলে) গেলে কেলাসের (ক্লাসের) কেউ কথা কয় না। একলগে বেঞ্চে বইতে দেয় না। কিছু জিগাইলে ‘মেথর’ বইলা গালি দেয়। হুদাই আমার লগে কাইজ্জ্যা (ঝগড়া) করে, মারতে চায়। স্যারের কাছে কইলেও বিচার করে না। বিস্কুট দিয়া বাড়িত পাডাইয়া দেয়। ঠিকমতো পড়াইতো না। আমরাতো  গরিব। ভালা ইশকুলে পড়নের টেকা নাই। তাই টু পর্যন্ত পইড়া ইশকুল ছাইড়া দিছি। অহন পেটের দায়ে রিকশা চালাই”। এ প্রতিবেদকের কাছে কথাগুলো বলছিল হরিজন সম্প্রদায়ের রিকশাচালক নয়ন বাশফোড়(১৩)। তার বাড়ি ময়মনসিংহের গৌরীপুর পৌর শহরের গো-হাটা সংলগ্ন হরিজন কলোনিতে। তার বাবা মৃত মিন্টু বাশফোড়। স্থানীয় ঘোষপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দ্বিতীয় শ্রেণিতে অধ্যয়নের সময় বর্ণবৈষ্যমের শিকার নয়নের পড়াশোনার ইতি ঘটে। সোমবার বিকালে রিকশাচালক নয়নের দেখা মেলে গৌরীপুর পৌর শহরের হাতেম আলী সড়কে। রিকশা নিয়ে যাত্রীর...

পুরাণে বেঁধেছি নতুন প্রাণ || রেবেকা সুলতানা

March 31, 2019

নয় ভাইবোনের সংসারে বেড়ে উঠা এই আমিটা কত না রঙিন স্বপ্ন দেখতাম। আত্মকেন্দ্রিকতায় ভরা স্বপ্নগুলোর মধ্যে ছিল- কখনও আমি ডাক্তার হতে চাইতাম। সাদা এপ্রোনে বেশ মানানসই লাগবে আমাকে ভেবে কি যে পুলকিত হতাম! আবার কখনো সিনেমার গল্পে দেখে তাদের মতোই ব্যারিস্টার হতে চাইতাম। কালো কোট আর কালো গাউন পরা ব্যারিস্টার আমি হবোই হবো। কিন্তু অনাকাঙ্ক্ষিত নম্বর কাঙ্ক্ষিত স্বপ্নের বারান্দায় হাটতে দিলোনা। তাতে কি স্বপ্ন দেখাই ছেড়ে দিবো? আবার অন্য ইচ্ছা ভর করলো। এইবার আমি হয় এডমিনিস্ট্রেটর নয় শিক্ষক হয়েই ছাড়বো। অবশেষে ক্যারিয়ার গড়ার মাঝপথে নিজের জীবন বেধে নিলাম অন্য জীবনের সাথে পরিবারের সাধে। বাহ! এতো অন্য জগত! স্বপ্ন আবার বাক নিলো অন্য রাস্তায়। নতুন জীবন একদিকে অন্যদিকে ভাই বোন সব নিয়ে রকমারি সংসারে অভ্যস্ততা, আর রকমারি স্বপ্ন। সময় পার করে ফুটফুটে তিন সন্তানের মা হলাম একে...

মায়ের স্বপ্ন বিয়ে দেয়ার, মেয়ের স্বপ্ন শিক্ষক হওয়ার

March 23, 2019

বাহাদুর ডেস্ক: মেয়েটির বয়স ষোলো কি সতেরো। সে একজন বাকপ্রতিবন্ধী। নিজের মনের অনুভূতি মুখের ভাষায় প্রকাশ করতে পারে না। ইশারা-ইঙ্গিতে কথা বোঝানোর চেষ্টা করে। কখনো আবার হাতে লিখে। তবে বিশেষ গুণ হলো- সে অনেক বিষয় খুব সহজেই আয়ত্ত করতে পারে। অভাব-অনটনের সঙ্গে যুদ্ধ করে প্রতিবন্ধীদের বিশেষ স্কুলে না পড়েও ২০১৮ সালে দাখিল (এসএসসি সমমান) পাশ করেছে। বর্তমানে উপজেলার ইসলামাবাদ সিনিয়র মাদরাসা আলিম শ্রেণিতে প্রথম বর্ষে অধ্যয়ন করছে। বলছিলাম গৌরীপুর উপজেলার লামাপাড়া গ্রামের মেয়ে সালমা আক্তারের কথা। সালমা আক্তারের বাড়ি উপজেলার মইলাকান্দা ইউনিয়নের লামাপাড়া গ্রামে। বাবা মৃত আবুল কাশেম। মা মমিনা খাতুন। পাঁচ ভাই-বোনের মধ্যে সালমা সবার ছোট। সে ২০১২ সালে লামাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে সমাপনী, ২০১৫ সালে লামাপাড়া বালিকা দাখিল মাদরাসা থেকে জেডিসি ও ২০১৮ সালে...

গরিবের স্বপ্ন অতো সহজে পূরণ হয় না

March 16, 2019

বাহাদুর ডেস্ক: ‘মাইনষ্যের কত কিছু করার স্বপ্ন থাকে। ব্যবসা-বাণিজ্য, গাড়ি-বাড়ি, টেকা-পয়সা বাড়ানো আরও কত কি। তয় আমার স্বপ আছিন বাড়িতে একটা টিনের ঘর করার। কিন্তু চা, পান, সিগারেট বেইচ্যা যে টেকা কামাই করি সবডা সংসারের পিছে লাইগ্যা পড়ে। ঘর করার টেকা আর জমাইতে পারি না। কয়েক বৎস্যর আগে চেয়ারম্যান-মেম্বারের কাছে সরকারি একটা ঘর চাইছিলাম। কইছে কইর‌্যা দেবে। কিন্তু পরে আর দেয় নাই। বুজলেন মিয়া ভাই, গরিবের স্বপ্ন অতো সহজে পূরণ হয় না। তয় অহন চেষ্টায় আছি গেরামে একটা চায়ের দোকান দিবার। কেরে জানি হেইডার টেকাও জমাইতে পারতাছি না।’ এ প্রতিনিধির সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে কথাগুলো বলছিলেন ভ্রাম্যমাণ হকার তোতা মিয়া (৫৫)। তার বাড়ি ময়মনসিংহের গৌরীপুরের রামগোপালপুর ইউনিয়নের নওয়াগাও গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের মৃত মল্লিক মিয়ার ছেলে। জীবিকার তাগিদে শহরের অলি-গলিতে ঘুরে ঘুরে চা,...

মনোজগৎ! উত্থান-পতনের আত্মউপলব্ধি- আল ইমরান মুক্তা

February 20, 2019

জীবনের পরতে পরতে তিক্ত অভিজ্ঞতার সঞ্চয়। যখন বুঝতে পারবেন, পৃথিবীতে বেঁচে থাকা মূলহীন। তখন জীবনটা বিষাদময় মনে হবে। কল্পনার জগতে কত-শত প্রশ্নের উদয় হবে। একবার ভাববেন, অপরাধী হয়ে বেঁচে থেকে কি লাভ! এর চেয়ে মৃত্যুর সাথে আলিঙ্গন করাই শ্রেয়। আবার পরক্ষণেই সিদ্ধান্ত পরিবর্তন হতে পারে। আপনমনে বলতে পারেন, বাঁচতে হবে। একই সাথে উপলব্ধি করতে পারেন, নিজের অবস্থার মান উন্নয়ন করা উচিত। প্রবাদ আছে, "মিষ্টি কথায় চিড়ে ভিজে না।" এটা অবশ্যই মনে রাখবেন, মানুষের সাথে যতই সদ্ব্যবহার করুন না কেন, আপনার অর্থিক অপ্রাচুর্য সব জৌলস ফিকে করে দিবে। এর জন্য লজ্জা পেতে হয়। আপমান সইতে হয়। আপনি নির্লজ্জ হলে হয়তো প্রতিবাদ করবেন। আর এর বিপরীত হলে কিছু বলতে পারবেন না। একটি কথা আছে, "না পারি কইতে, না পারি সইতে।" নিয়তি আপনার সাথে এমন কেন করলো? তাই বলে কি হেরে যাবেন? তা কখনও হতে পারে না। আপনাকে জয়ী...