Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

| |

কথিত জাতীয়তাবাদী সাইবার দলের সভাপতি গ্রেফতার

March 25, 2019

বাহাদুর ডেস্ক : সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধকে অবমাননা করে পোস্ট ও রাষ্ট্রবিরোধী প্রপাগান্ডা ছড়ানোর অভিযোগে কথিত জাতীয়তাবাদী সাইবার দলের সভাপতি আশেক আহমেদকে (৪০) আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ান (র‌্যাব)। রোববার রাতে রাজধানীর তেজগাঁও এলাকা থেকে তাকে আটক করে র‌্যাব-৩। র‍্যাব এর পক্ষ থেকে সোমবার সকালে গণমাধ্যমে পাঠানো মোবাইল ফোনের খুদে বার্তায় এই তথ্য জানানো হয়। //টি.কে/ওয়েভ-ইন//...

মাদারীপুরে ছাত্রলীগ নেতার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

March 25, 2019

বাহাদুর ডেস্ক : মাদারীপুর জেলা ছাত্রলীগের এক নেতার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার নাম লিমন মজুমদার। তিনি মাদারীপুর জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি। সোমবার সকালে পৌর শহরের আমিরাবাদ এলাকার লিয়াকত আলীর নিমার্ণাধীন ভবনের দোতলা থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। মাদারীপুর সদর থানার ওসি (তদন্ত) সিরাজুল ইসলাম বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। লিমনের পরিবার অভিযোগ দিলেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে। লিমনের পরিবারের দাবি, পরিকল্পিতভাবে লিমনকে হত্যা করা হয়েছে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সোমবার সকালে আমিরাবাগ এলাকার মিলন সিনেমা হলের পিছনে লিয়াকত আলীর নির্মাণাধীন ভবনের দোতলায় লিমন মজুমদারের গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় মরদেহ দেখতে পায় এলাকাবাসী। পরে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে মাদারীপুর মর্গে পাঠায়। এসময়...

১৯৭১ ।। গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি চাই…

March 25, 2019

বাহাদুর ডেস্ক : একাত্তরের গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেতে নানা বেসরকারি প্রচেষ্টা আছে। তবে নেই জোরালো সরকারি কূটনৈতিক উদ্যোগ। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কার্যকর উদ্যোগ না থাকায় ২৫ মার্চ আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবসের স্বীকৃতি আদায়ের সুযোগ এর আগে হাতছাড়া হয়ে গেছে। এখন খোলা আছে শুধু একাত্তরের গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায়ের পথ। তবে এ ক্ষেত্রেও জোরালো কূটনৈতিক উদ্যোগ দেখা যাচ্ছে না। এদিকে পাকিস্তান এখনও একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধকে 'গৃহযুদ্ধ' কিংবা 'ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধ' হিসেবে প্রচার করে এই গণহত্যা ও ত্রিশ লাখ শহীদের আত্মদানের ইতিহাসকে বিকৃত ও বিতর্কিত করার অপচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। এ গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি মিললে বিভিন্ন ঐতিহাসিক দলিলে এ-সংক্রান্ত ইতিহাস ও এর হন্তারক রাষ্ট্র, সংস্থা ও ব্যক্তিদের সম্পর্কেও নানা তথ্যের উল্লেখ থাকবে। ইতিহাসের...

মার্কিন নির্বাচনে ষড়যন্ত্র করেনি রাশিয়া

March 25, 2019

বাহাদুর ডেস্ক : ২০১৬ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পের প্রচারণার সঙ্গে রাশিয়ার যুক্ত থাকার যে অভিযোগ ওঠেছিল তা ভিত্তিহীন। মার্কিন নির্বাচনে রাশিয়ার ষড়যন্ত্রের কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। এ ঘটনা তদন্তে নিযুক্ত বিশেষ কৌঁসুলি রবার্ট মুলালেন তদন্ত প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে। খবর বিবিসির রোববার মার্কিন কংগ্রেসে এই প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়েছে। তবে ট্রাম্প তার প্রেসিডেন্ট ক্ষমতা কাজে লাগিয়ে অবৈধভাবে বিচার বাধাগ্রস্ত করেছেন কিনা তা প্রতিবেদনে বলা হয়নি। কংগ্রেসের জন্য প্রতিবেদনটির সারসংক্ষেপ তৈরি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বার। ট্রাম্প এক টুইটে বলেন, কোনো আঁতাত হয়নি, বাধাও দেওয়া হয়নি। এই তদন্ত প্রক্রিয়াকে ট্রাম্প তার বিরুদ্ধে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা হিসেবে দাবি করে আসছিলেন। //টি.কে/ওয়েভ-ইন//...

আরেক ভয়ংকর মাদক ‘আইস’

March 25, 2019

বাহাদুর ডেস্ক : সর্বনাশা মাদকের ভয়াবহতা সীমা ছাড়িয়ে গেছে। প্রতিদিনই যোগ হচ্ছে মাদকের নিত্যনতুন ধরন ও কারবারের নতুন কৌশল। এরই ধারাবাহিকতায় ইয়াবা কিংবা ‘খাট’ নিয়ে চিন্তার মধ্যেই নতুন আরেক মাদক নিয়ে দুশ্চিন্তা বেড়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর। ‘এমডিএমএ’ বা ‘আইস’ নামের এই মাদক ইয়াবার চেয়েও ভয়ংকর। ক্ষতির বিবেচনায়ও এটি ইয়াবা ও খাটের চেয়েও ভয়াবহ। খোদ রাজধানীতেই খোঁজ মেলে ‘আইস’ কারখানা। গত ২৬ ফেব্রুয়ারি মোহাম্মদপুরে ‘আইস’ পিল তৈরি ল্যাবের সন্ধান পায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর (ডিএনসি)। তবে এই মাদক তৈরির উপাদান ও কারখানার সন্ধান পাওয়া গেলেও হোতা ধরাছোঁয়ার বাইরে থাকায় বেড়েছে উদ্বেগের মাত্রা। ভয়ংকর মাদক ‘আইস’ : চলতি বছরের ২৬ ফেব্রুয়ারি মোহাম্মদপুর থেকে আইস পিলসহ রাকিব উদ্দিন নামে এক মাদক কারবারিকে আটক করেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর (ডিএনসি)।...

নিত্যপণ্যের বাজার জবাবদিহির আওতায় আসুক

March 25, 2019

বাহাদুর ডেস্ক : খুচরা বাজারে নিত্যপণ্যের দাম এখন ক্রয়ক্ষমতার বাইরে। মাত্র তিন সপ্তাহের ব্যবধানে ক্রেতা পক্ষকে এ দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। বেড়েছে চাল, ডাল, ভোজ্য তেল, মাছ, মাংস, শাক-সবজি ও ফলের দাম। বাড়লেও কমার কোনো লক্ষণ নেই। এতে উচ্চবিত্তের শরীরে কোনো আঁচ না লাগলেও নাভিশ্বাস উঠছে নিম্নবিত্ত এবং নিম্ন মধ্যবিত্তের সংসারে। বাজারে গিয়ে চাহিদা ও সামর্থ্যরে সম্পর্কটা হয়ে উঠছে সাংঘর্ষিক। দিশাহারা হয়ে পড়ছেন সাধারণ মানুষ। বাজার স্থিতিশীল রাখার জন্য সরকারের নানামুখী পদক্ষেপ থাকার পরও লাগাম টেনে ধরা সম্ভব হয়নি। অসাধু কিছু ব্যবসায়ীর কাছে বন্দিবস্থায় বসবাস করছে আমাদের ক্রয়ক্ষমতা। স্বেচ্ছায় নয়, এ বসবাস অনেকটা বাধ্যতামূলক। ক্যাবের তথ্য মতে, ২০১৮ সালেই কেবল ঢাকায় জীবনযাত্রার খরচ বেড়েছে ৬ শতাংশ। পণ্য ও সেবায় বেড়েছে ৫ দশমিক ১৭ শতাংশ। এসব বাড়তি খরচের শিকার হচ্ছে...